সাদাকালো যুগের ফুটবল - ০১

সাদাকালো যুগের ফুটবল - ০১

"ব্রাজিলকে যে ব্রাজিলের মর্যাদা দিয়েছিল "

মেসি কে ? ম্যারাডোনা কে ? ক্রুইফ কে ? রোনাল্ডো কে? জিদান কে ?
তারা কেউ না যার সামনে আজকে ; তার গল্পটাই বলব আমি।

আজকের গল্পটা এমন একজনকে নিয়ে যে ব্রাজিলকে বিশ্ব দরবারে শ্রেষ্ঠের খেতাব দিয়েছে । এমন একজন যে বর্ণবাদের যুগেও সব কিছুকে উপেক্ষা করে গিয়েছে । আসলে গল্প বললে ভুল হবে । এটা গল্পতো না । গল্পের রূপে এক বাস্তবতা। নিজের স্বপ্নকে কি সবাই আর বাস্তবের রূপ দিতে পারে। আসলে অনেকেই পারে । এজন্যেই হয়তো পৃথিবী তাদের সব সময় মনে রাখে । সময়ের সাথে এরা হারিয়ে যায় না । আর যে এই কাজ তিন তিন বার করেছে সে কোন সন্দেহ ছাড়া সর্বশ্রেষ্ঠ।

'পেলে'
(এটা তার আসল নাম না , তাকে নিয়ে যে কোন কিছু জানতে গুগল বা ইন্টারনেট আছে , আমি আজকে বলব কেন সে সর্বসেরা )

Related image

পেলের আমলে ব্রাজিলিয়ান লীগ কোন সন্দেহ ছাড়াই সবথেকে কঠিন লীগ ছিল । ১৯৫৮.১৯৬২,১৬৭০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন টিম এর প্লেয়াররা এই লিগে খেলত। তাদের মধ্যে খুব কম প্লেয়ারই ইউরোপে খেলত । উদাহরণস্বরূপ Altafini(Mazola) and Amarildo।
আলতাফিনি কে সেটা আগে বলে নেই না হয় । আলতাফিনি Serie A এর ৪র্থ সর্বচ্চ গোলদাতা ( ২১৬ টি) এবং সে একজন মিলান লিজেন্ড। মিলানের হয়ে প্রথম ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছিল ১৯৬৩ সালে । সেই আলতাফিনিও ব্রাজিল টিম এর বেঞ্চ প্লেয়ার ছিল । Amarildo ও মিলান লিজেন্ড। তারা মিলানের হয়ে ইউরোপ জয় করেছে , Serie A জিতেছে কিন্তু ব্রাজিলের বেঞ্চ প্লেয়ার ছিল। ১৭ বছরের পেলে তাদের আগে টিমে সুযোগ পেত। শুধু এখানেই শেষ নয় । পেলে Germany 70s, England 66-70, Italy 1970, 60s Inter, Benfica, Milan, Juventus, Real Madrid যেখানে ছিল Distefano and Puskas, Barcelona যেখানে ছিল Kocsis and Suarez এদের সবাইকেই হারিয়েছিল ।Image result for pele vs beckenbauer

এখানেই শেষ না । আপনি বলতে পারেন , পেলের ব্রাজিলে আর অনেক গ্রেট প্লেয়ার ছিল । হাঁ ছিল । তাদের কেও পেলে ছাড়িয়ে গিয়েছে ব্রাজিলিয়ান লীগ এবং ডোমেস্টিক কাপ এ ।
পেলে বোটাফিগোকে Copa Libertadores 1963(০-৪ এবং Brazilian league (০-৫) এ হারিয়েছে । যেই বোটাফিগোতে তখন ছিল Garrincha, Didi, Nilton Santos, Amarildo, Jairzinho, Zagallo। এরা কারা একটু গুগল করলেই জানতে পারবেন । আর হ্যাঁ দিদি কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদেও ১৯৫৯-৬০ খেলেছিল । বিশ্ববিখ্যাত Alfred di Stefano (আলফ্রেড ডি স্টেফানো) তখন সকল দর্শকের দিদি কে ঘিরে অতি উচ্ছ্বাস বেশি পছন্দ হত না বলে দিদি এর সাথে প্রায় লেগে যেত । আর এটা ধরেই দিদি মাদ্রিদ ত্যাগ করে । বুঝতেই পারছেন তখন ইউরোপ থেকে ব্রাজিল লীগ কতটা শক্তিধর ছিল ।

আচ্ছা Rivelino নামটা শুনেছেন কখনও?
এলাস্টিক (Elastic) ড্রিবলিং বলে যে মুখে ফেনা তুলে ফেলেন এটার উদ্ভাবক বলা হয় এনাকে। পেলের আমলে এনার 'Corinthians ' ও ১১ বছর কোন ম্যাচ জিততে পারে নি পেলের সান্তসের সাথে ।

আশা করি পেলে কি একটু হলেও ধারণা করতে পারছেন।

আরেকটু ধারণা নিবেন কি ?

Cruyff turn - এটা Cruyff এরও আগে পেলেকে নিতে দেখা গিয়েছে ১৯৬০ সালে Juventus এর সাথে ম্যাচ এ তাও ।

আচ্ছা আরেকটা জিনিস জানাই না হয় ।
ম্যারাডোনা তার জীবনের সবগুলো কোপা আমেরিকা তে ব্যর্থ (১৯৭৯,১৯৮৭.১৯৮৯)। যেখানে পেলে তার জীবনের এক মাত্র কোপা আমেরিকা এর সর্বোচ্চ গোলদাতা । তাও ১৮ বছর বয়সেই। এটাও বলা বাহুল্য আর্জেন্টিনা এর মাটিতে তাও আবার।

আর একটা কথা না জানালেই নয় । পেলে ২০৪ গোল করেছে ইউরোপ টিম গুলার সাথে খেলে তাও আবার মাত্র ১৯৫ টি ম্যাচে । এগুলা সব গোলই ইউরোপের মাটিতে। তাও কোন কোন ডিফেন্ডারদের এগেইন্সট এ জানেন?  Beckenbauer, Bobby Moore, Burgnich, Facchetti, Nilton Santos, Elias Figueroa, Banks, Yashin.!!!!!!!!!!!!!! 

ধারণা দিলাম মাত্র!!!

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন