সারির অধীনে কেমন হতে পারে ইতালি দল?

সারির অধীনে কেমন হতে পারে ইতালি দল?
Rahik Sumail October 6, 2017, 11:55 pm Articles

ইতালিয়ান সেরি আতে ইন্টারন্যাশনাল ব্রেকের মাঝে বর্তমানে শীর্ষস্থানে অবস্থান করছে নাপোলি। লীগে ৭ ম্যাচের ৭টিতেই জয় নিয়ে জুভেন্টাসকেও টেক্কা দিয়ে জায়গাটা দখল করে নিয়েছে ন্যাপলসের দলটি। মূলত কোচ মৌরিজিও সারির বিশেষ প্লেয়িং স্টাইলই নাপোলিকে পরিনত করে তুলেছে এক চোখ ধাঁধানো দলে।

কোচ সারির নাপোলিকে খেলানোর ধরন গত দুই মৌসুম ধরেই বিশ্ব ফুটবলে সমাদৃত হচ্ছে। ডিফেন্স লাইন থেকে নিজেদের মধ্যে পরিকল্পিত এবং দ্রুত পাসিং টেকনিক দিয়ে আক্রমন সাজানো, বল হারালে কাউন্টার প্রেসিং এবং জোনাল মার্কিংয়ের সাথে মাঠের জায়গা ছোট করে প্রতিপক্ষকে প্রায় দমবন্ধ করে বল ছিনিয়ে নেয়ার প্রবনতা সারির অধীনে নাপোলির খেলার কিছু উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট। এছাড়া মারটেন্স, হামসিক, ইনসিনিয়েদের ব্যক্তিগত নৈপুন্য তো রয়েছেই। তবে এই মৌসুমে খেলার ধরনে নাপোলি দল হিসেবে যেন একটু বেশিই পরিনত। গত সপ্তাহে কালিয়ারির বিপক্ষে ৩-০ গোলের জয়ে পুরো ম্যাচে নাপোলির পাসের সংখ্যা ছিলো ৯০০এরও বেশি এরমধ্যে সফল পাসের সংখ্যা ছিলো ৮৫৮টি! লীগে এখন পর্যন্ত ম্যাচ প্রতি তাদের বল পজেশন ৬১% এবং পাসিং একুরেসি ৮৯ শতাংশেরও বেশি। বলা বাহুল্য, এসব পরিসংখ্যানে লীগে তাদের অবস্থান সবচেয়ে উপরে। আবার অন্যান্য বল পজেশনভিত্তিক দলগুলোর মতোন তাদের খেলার ধরন অতোটা একঘেয়ে নয়। যার প্রমান দিচ্ছে লীগে তাদের ম্যাচ প্রতি গোলে নেয়া শটের সংখ্যা, যা প্রায় ২০টি। 

সারির এমন নৈপূন্যে কানাঘুষা চলছে তাকে ইতালির জাতীয় দলের দ্বায়িত্ব দেয়ার। যদিও ইউরোপের একটি গুরত্বপূর্ন লীগের কোনো দল থেকে মৌসুম শুরু হয়ে যাওয়ার পর কোনো কোচকে বাগিয়ে এনে তাকে জাতীয় দলের কোচ বানিয়ে দেয়া কঠিন। তবে ভেঞ্চুরার অধীনে ইতালি দলের বর্তমান পারফর্মেন্স কিছুটা ভাবিয়ে তুলছে ইতালির হর্তাকর্তাদের। বর্তমানে না হলেও আধুনিক দৃষ্টিভঙ্গিসম্পন্ন কোচ সারিকে হয়তো বিশ্বকাপের পর দেয়া হতে পারে ইতালি জাতীয় দলের দ্বায়িত্ব।

যদি শেষ পর্যন্ত ব্যপারটা তাই হয় তাহলে সারির অধীনে কেমন হতে পারে নতুন প্রজন্মের ইতালি দল- সেটি আন্দাজ করার চেষ্টা করে হবে এখন। বলে রাখা ভালো কোচ হিসেবে সারির দর্শন গতানুগতিক ইতালিয়ান ফুটবল দর্শনের তুলনায় কিছুটা ভিন্ন। সারির নাপোলির খেলার ধরনের সাথে মিলিয়ে ইতালির একাদশ গড়লে তা হয়তো ইতালির ফুটবলের ধরনের সাথে কিছুটা বেমানান। কিন্তু এখানে সেটিই হবে মূলত ফুটবলপ্রেমিদের আগ্রহের মুল বিষয়। তাহলে আসুন অনুমান করে নেয়া যাক সারির দর্শনে কেমন হতে পারে ইতালি জাতীয় দলঃ 

দলটি হবে মূলত ৪-৩-৩ ফর্মেশনের যেখানে অগ্রাধিকার পাবে বল পায়ে বিশেষ দক্ষ ফুটবলাররা। ইতালির জাতীয় দলে যেখানে 'রাফ এন্ড টাফ' বৈশিষ্ট্যের অধিকারী ফুটবলাররা অগ্রাধিকার পান সেখানে সারির খেলোয়াড় নির্বাচনের নির্নায়ক হতে পারে খেলোয়াড়দের টেকনিক্যাল সক্ষমতা।

গোলকিপিং

দলটি যেহেতু 'নতুন প্রজন্মের' ইতালির এবং বুফনেরও পারফর্মেন্সে পড়তে শুরু করেছে বয়সের ছাপ, তাই কোনো দুর্ঘটনা না ঘটলে এই দলের গোলরক্ষকের ভূমিকায় থাকবেন এসি মিলানের ওয়ান্ডার কিড জিয়ানলুইজি ডোনারুমা। ইতিমধ্যেই ইতালি জাতীয় দলের হয়ে কিছু ম্যাচ খেলে ফেলেছেন তিনি। বর্তমান গতিতে এগিয়ে চললে ইতালির নিয়মিত গোলরক্ষক হয়ে ওঠা তার জন্য এখন সময়ের ব্যপার মাত্র।

রক্ষনভাগ

৪জনের ব্যাকলাইনে থাকবেন দুইজন আক্রমনাত্মক স্বভাবের ফুলব্যাক। নাপোলির হাইসাজ আর ফ্রেডি গৌলামের খেলার ধরন তাইই নির্দেশ করে। তাই ইতালির বর্তমান সময়ের সেরা আক্রমনাত্মক রাইটব্যাক হিসেবে এখানে জায়গা করে নিতে পারেন আন্দ্রেয়া কন্টি। এছাড়া জাপাকোস্তা, ফ্লোরেঞ্জিরাও হতে পারেন ভালো অপশন। লেফটব্যাকে রোমার এমারসন পালমেইরি গত মৌসুমে বেশ আলো ছড়িয়েছিলেন। নিজের জন্মভূমি ব্রাজিল ছেড়ে ইতালীর হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নেয়া এমারসন হতে পারেন ইতালি জাতীয় দলের ভবিষ্যত যদিও তাকে ভালোই প্রতিযোগিতার মুখে ফেলতে পারেন স্পিনেজ্জোলা। দুই সেন্টারব্যাক হিসেবে বনুচ্চি আর কিয়েল্লিনি জুটি ভাংতে চাইবেন না সারি। এখানে বনুচ্চি হতে পারেন সারির জন্য বেশ গুরত্বপূর্ন কারন নাপোলির সেন্টারব্যাকদের বল প্লেয়িং সক্ষমতা চোখে পড়ার মতোন। বর্তমানে সেরি আর সবচেয়ে বেশি পাস সম্পন্ন করা খেলোয়াড় নাপোলির সিবি কৌলিবালি। তাই একই বৈশিষ্টের কারনে বনুচ্চি হতে পারেন সারির এক গুরত্বপূর্ন খেলোয়াড়। একই কারন রোমানলি কিংবা রুগানিরাও হয়ে উঠতে পারেন গুরত্বপূর্ন। 

মিডফিল্ড

নাপোলিতে নিজের নিয়মিত একাদশে জর্জিনহোকে খেলান সারি যিনি মূলত একজন 'রেজিস্তা' কিংবা ডিপলায়িং প্লে মেকার। ইতালি জাতীয় দলেও তাকে রাখার সম্ভাবনা প্রবল। সেন্টার মিডফিল্ডে তাকে সঙ্গ দিতে পারেন বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম সেরা মিডফিল্ডার ভেরাত্তি এবং তরুন প্রতিভা লরেঞ্জো পেল্ল্রেগ্রিনি। এরা দুইজন মূলত জর্জিনহোর সামনে আক্রমন এবং রক্ষন দুই কাজেই সহায়তার মাধ্যমে দলে ইঞ্জিন হিসেবে কাজ করবেন। নাপোলিতে হামসিক, এলান, জিয়েলিন্সকিদের ব্যবহারে টেকনিক্যালি গিফটেড মিডফিল্ডারদের প্রতি সারির ঝোকটা অনুধাবন করে নেয়া যায়। 

আক্রমনভাগ  

নাপোলির আক্রমনত্রয়ীর লেফট উইংগার হিসেবে খেলা ইনসিনিয়ে শুধু নাপোলি নয়, ইতালিয়ান লীগে অন্যতম ধারাবাহিক পারফর্মার। ইতালি দলেও সারির অধীনে তিনি জায়গা পেয়ে যাবেন এমন সম্ভাবনা প্রবল। রাইট উইংগার হিসেবে প্রবল প্রতিযোগিতা হতে পারে বার্নার্দেসি এবং ক্যান্দ্রেভার মধ্যে। তবে প্লে মেকিং আর কম বয়সের কারনে ইতালিকে দীর্ঘদিনের জন্য সার্ভিস দিতে পারবেন জুভেন্টাসের নতুন সাইনিং বারনার্দেসি। আর সেন্টার ফরোয়ার্ড হতে পারেন আন্দ্রেয়া বেলত্তি। তবে তাকে প্রবল প্রতিযোগিতার মুখে ফেলতে পারেন সিরো ইমোবিলে। 

                     

তবে সারি গত মৌসুমে নাপোলিকে খেলিয়েছেন ৪-২-৩-১ ফর্মেশনেও যেখানে জর্জিনহো বা এলানদের জায়গায় সারি খেলিয়েছেন আরো শারীরিক শক্তিসম্পন্ন ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার আমাদু দিওয়ারাকে। তাই প্লান 'বি' হিসেবে স্কোয়াডে গুরত্বপূর্ন হতে পারেন ডি রসি, ক্রিস্তান্তে কিংবা বেনাসির মতোন মিডফিল্ডাররা। সেক্ষেত্রে নাম্বার টেন হিসেবে খেলতে পারেন ভেরাত্তি, পেল্লেগ্রিনি এমনকি বার্নার্দেসিও। 

দলটির ধারনা পুরোটাই অনুমাননির্ভর। তবে সারি ইতালি দলের দায়িত্ব নিলে ফুটবল অনুরাগিদের কাছে ইতালি দলটির হালচাল বেশ আগ্রহের ব্যপার হবে তা বলাই যায়।

 





Similar Post You May Like

Find us on Facebook