চ্যাম্পিয়নস লীগে বড় জয় পেলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

চ্যাম্পিয়নস লীগে বড় জয় পেলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

রাশিয়ায় গিয়ে চ্যাম্পিয়নস লীগ ম্যাচ খেলা সবসময়ই চ্যালেঞ্জিং। দল দারুণ ফর্মে থাকলেও তাই ভয় ছিলই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। তবে হতাশ করেনি তারা একদমই।

অসাধারণ খেলে গোটা ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করে বড় জয় পেয়েছে ইংলীশ জায়ান্টরা। জয়ের ব্যবধান ৪-১। জোড়া গোল করেছেন রোমেলু লুকাকু, এছাড়া গোল করেছেন মার্শিয়াল ও মিখিতারিয়ান।

ম্যাচের শুরু থেকেই প্রতিপক্ষকে চেপে ধরার চেষ্টা করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সফলও হয় তারা ৪র্থ মিনিটেই। মার্শিয়ালের ক্রসে হেড করে দলকে এগিয়ে নেন রোমেলু লুকাকু। এরপর চেষ্টা করেও ম্যাচে খুব একটা প্রভাবি ফেলতে পারেনি সিএসকেএ। তবে তাদের হাতেগোণা কয়েকটি আক্রমণের মাঝেও ডেভিড ডে গেয়াকে ভালোই বেগ পেতে হয়েছে। তবে ম্যাচে গোলের ব্যবধান আরো বাড়তে পারত যদিনা সিএসকেএ গোলরক্ষক আকিনফিভ বেশ কয়েকবার অসাধারণ দক্ষতায় না ঠেকাতেন ইউনাইটেডের ভালো কয়েকটি শট।

১৯তম মিনিটে ইউনাইটেড পায় নিজেদের দ্বিতীয় গোল। মিখিতারিয়ানকে বক্সের ভেতর করা ফাউল থেকে পাওয়া পেনাল্টিতে গোল করে দলকে আরো এক গোলের লিড এনে দেন মার্শিয়াল। গোটা ম্যাচই দারুণ খেলেছেন তিনি। পরের গোল পেতেও খুব একটা সময় নেয়নি ইউনাইটেড। মার্শিয়ালের ক্রস থেকেই বল জালে জড়ান লুকাকু, করেন ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোল। এরপরও আক্রমণ চালিয়ে গেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, তবে গোল হয়নি আর শুরুর অর্ধে।

বিরতির পরও অব্যহত থাকে ম্যান ইউনাইটেডের আক্রমণের ধারা। বেশ কয়েকটি আক্রমণ  ব্যর্থ হলেও ৫৭তম মিনিটে আরেক গোল করে তারা। গোলদাতা মিখিতারিয়ান। মার্শিয়ালের শট গোলরক্ষক ঠেকালেও ফিরতি শট আর ঠেকাতে পারেননি। এরপরো আরো বেশ কয়েক্মটী ভালো সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয় ইউনাইটেড। সিএসকেএ মস্কোও চেষ্টা করে যায় গোটা ম্যাচ গোল পেতে। অবশেষে তারা সফল হয় ৯০তম মিনিটে। গোলোভিনের পাস থেকে তাদের তরুণ ফরোয়ার্ড কুচায়েভ চমৎকার ফিনিশিংয়ে ব্যবধান ১ কমাতে সক্ষম হন। শেষ পর্যন্ত ব্যবধান থাকে ১-৪।

দুই ম্যাচে দুই জয়ে গ্রুপে শীর্ষে ইউনাইটেড, বাসেল ও সিএসকেএ সমান ৩ পয়েন্ট করে অর্জন করলেও গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বাসেল দ্বিতীয়। আর শেষস্থানে বেনফিকা।  

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন