ম্যাচ রিপোর্টঃ পিএসজি ২-০ অলিম্পিক লিও

ম্যাচ রিপোর্টঃ পিএসজি ২-০ অলিম্পিক লিও

টেবিলের শীর্ষে থাকা পিএসজি আগের ম্যাচগুলোতে আক্ষরিক অর্থেই গোলবন্যায় ভাসিয়েছিলো প্রতিপক্ষদের। কিন্তু এ সপ্তাহের প্রতিপক্ষ ছিলো আরেক শিরোপাপ্রত্যাশী অলিম্পিক লিও। পিএসজির ঘরের মাঠ পার্ক ডেস প্রিন্সেসে হলেও ম্যাচ তাই সহজ হবে না বোঝাই যাচ্ছিলো।

হয়েছেও তাই। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে গেছে লিও শেষ পর্যন্ত। তবে শেষরক্ষা হয়নি। নেইমার-কাভানি-এমবাপ্পে সম্বলিত আক্রমণভাগ শেষ পর্যন্ত পুরোপুরি সামলাতে পারেনি তারা। তবে গোলের খাতায় কিন্তু পিএসজি ত্রয়ীর কারো নাম উঠেনি, এমনকি পিএসজির কোনো খেলোয়াড়েরও না! ম্যাচের দুটি গোলই হয়েছে আত্নঘাতী। তবে পেছনের কারিগর ছিলেন অবশ্য পিএসজির আক্রমণভাগের তিনজনই। দ্বিতীয়ার্ধের দুই আত্নঘাতী গোলে শেষ পর্যন্ত ব্যবধান হয়েছে ২-০।

প্রথামার্ধ থেকেই গোলের চেষ্টায় আক্রমণ করে যাচ্ছিলো পিএসজি। তবে প্রতিপক্ষ একেবারে ছেড়ে কথা বলেনি। তারাও সুযোগ পেলেই উপযুক্ত জবাব দেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছিলো। তবে ম্যাচে গোলের সুযোগ তৈরিতে এগিয়ে ছিলো পিএসজিই। প্রথমার্ধে ক্রস থেকে ভালো দুই আক্রমণ গোলে পরিণত করতে পারেননি থিয়াগো সিলভা ও কাভানি। এরপর এমবাপ্পের পাস থেকে নেইমারের শট ঠেকিয়ে দেন লিও গোলরক্ষক। প্রথমার্ধ গোলশূন্য থেকে শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধে শুরু থেকেই ম্যাচের এগিয়ে যাবার জন্য প্রতিপক্ষের উপর চাপ দিতে থাকে পিএসজি। লিও বলের দখলে পিছিয়ে থাকলেও কাউন্টার এটাকে বেশ কয়েকবার ভড়কে দেওয়ার চেষ্টা করে প্রতিপক্ষকে। একবার তো বারে লেগে ফিরে আসে লিওর এন্ডোম্বেলের নেওয়া একটি দুরপাল্লার শট। এরমধ্যে পিএসজিরও বেশ কয়েকটি ভালো আক্রমণ ঠেকিয়ে দেয় লিও। তবে ৭৫তম মিনিটে ভেঙ্গে যায় তাদের প্রতিরোধ। বদলী হিসেবে নামা জিওভানি লে কেলসোর ক্রস কাভানি ব্যাকহিল ফ্লিকে জালে জড়ানোর প্রচেষ্টা ঠেকআতে গিয়ে নিজের জালে গোল করেন লিও ডিফেন্ডার মার্সেলো। কিছুক্ষণ পরই এমবাপ্পেকে বক্সের ভেতর ফাউল করে পিএসজিকে পেনাল্টি উপহার দেয় লিও। কিন্তু কাভানি মিস করে বসলে দুই গোলের ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ হারায় পিএসজি। তবে ৮৬তম মিনিটে নেইমারের পাসে এমবাপ্পের শট ঠেকাতে গিয়ে আরেকটি আত্নঘাতী গোল হয় লিওর বিপক্ষে। এবার অপরাধী জেরেমি মোরেল। ম্যাচে আর গোল না হলে শেষ পর্যন্ত ২-০ তে জয় পায় প্যারিস সেইন্ট জার্মেই।       

৬ ম্যাচে সবকটিতে জয় পেয়ে পিএসজি লীগ টেবিলের শীর্ষস্থান মজবুত করলো, আর লিও এ হারে টেবিলের পঞ্চম স্থানে।

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন