ম্যাচ রিপোর্টঃ স্টোক সিটি ২-২ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

ম্যাচ রিপোর্টঃ স্টোক সিটি ২-২ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

স্টোক সিটির মাঠে খেলতে যাওয়া ইংলিশ লীগের যেকোনো দলের জন্যই বড় চ্যালেঞ্জ। তবে টেবিলের শীর্ষে থাকা দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড জয় ছাড়া অন্যকিছু চাইবে কেন? তাই ইতিবাচক দল নিয়েই খেলতে নেমেছিলো দুদল।

শুরু থেকেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে খেলতে থাকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তবে কিছু হাফ চান্স পেলেও স্টোক ডিফেন্সের নিপুণতায় পরিষ্কার সুযোগ বের করতে পারছিলো না তারা। স্টোক সিটি তেমন সুযোগ তৈরি করতে না পারলেও রক্ষণ ধরে বেশ ভালো খেলছিলো। তবে ম্যাচে তারাই প্রথম দেখা পায় গোলের। ৪১তম মিনিটে চুপো মোটিং এগিয়ে নেন স্টোক সিটিকে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বেশি সময় নেয়নি সমতায় ফিরতে। প্রথমার্ধের অন্তিম মুহুর্তে কর্নার থেকে উড়ন্ত বলে পগবার হেড রাশফোর্ডের গায়ে লেগে জালে জড়ালে সমতায় শেষ হয় প্রথমার্ধ।

দ্বিতীয়ার্ধে স্টোক সিটি ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা চালাতে থাকে। তবে শীঘ্রই ম্যাচে ফেরে ইউনাইটেড। মিখিতারিয়ানের পাসে লুকাকুর গোল ম্যাচে প্রথমবারের মত এগিয়ে নেয় ইউনাইটেডকে। স্টোক সমতার জন্য মরিয়া হয়ে ঝাপায়। ৬৩তম মিনিটে ডে হেয়ার দারুণ সেভ একটি চমৎকার সু্যোগ নষ্ট করে তাদের। তবে পরের মিনিটেই তারা পেয়ে যায় কাঙ্ক্ষিত গোল। গোলস্কোরার সেই একই। কর্নার থেকে আসা বল জালে জড়ান চুপো মোটিং। এরপর ম্যাচে এগিয়ে যেতে চাপ দিতে থাকে ইউনাইটেড। সমানতালে রক্ষণকাজ করতে থাকে স্টোক। ৮১তম মিনিটে লুকাকু দারুণ একটি সুযোগ মিস করেন। ম্যাচের শেষ মুহুর্তে স্টোক গোলরক্ষক বুটল্যান্ডের অসাধারণ সেভ ম্যাচ বাচায় তাদের জন্য। সমতায় শেষ হয় খেলা।

চার ম্যাচ শেষে ম্যানচেস্টার সিটির সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে ইউনাইটেড। আর ৫ পয়েন্ট নিয়ে দশম স্থানে স্টোক সিটি।

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন