ফরওয়ার্ড : শুধুই কি একজন গোলস্কোরার?

ফরওয়ার্ড : শুধুই কি একজন গোলস্কোরার?

ফুটবল খেলায় ফরওয়ার্ড নামটির বহুল ব্যবহারের বিষয়টি কে না জানি! একটি ফুটবল খেলাতে গোলকিপার,ডিফেন্ডার,ফরওয়ার্ড এর প্রয়োজন হয়- সেটা আমরা সেই ছোটকাল থেকে জেনে আসছি। ফরওয়ার্ডদের মধ্যে মাঝের আক্রমণভাগের খেলোয়াড়টি আবার গোলের পর গোল করতেও দ্বিধাবোধ করেন না। আমরা একনামেই তাদেরকে চিনি, “স্ট্রাইকার”।

কিন্তু ফরওয়ার্ড মানেই কি খালি একমাত্র স্ট্রাইকারই? অনেকে তাই মনে করলেও আধুনিক ফুটবল আপনাকে এমন একটা জায়গায় নিয়ে গিয়ে দাঁড় করিয়ে দিবে, যেখানে চারদিক থেকেই একটা বিষয়ের উপরে কাঁটাছেড়া চলে, অতি সাধারন বিষয়বস্তুতেও রয়েছে একাধিক বিভাগ ও পক্ষে বিপক্ষে যুক্তি। তো, সেই কাঁটাছেড়াময় ফুটবল দুনিয়ায় এক ফরওয়ার্ড পজিশনটিকেই কিভাবে মুল্যায়ন করা হচ্ছে? কি কি ভূমিকায় কিভাবে রয়েছে এর ভেতরের বিভাগগুলো? আসুন সেটারই ছোট্ট একটি অনুসন্ধান হয়ে যাক।

প্রথমেই চলুন প্রশ্ন দিয়েই শুরু করা যাক। আচ্ছা, একজন ফরওয়ার্ড এর কাজ গোল করা ছাড়াও আর কি কি? কি কি গুন দেখে একজন খেলোয়াড় কে ফরওয়ার্ড হিসেবে বিচার করব? স্ট্রাইকার আর সেন্টার ফরওয়ার্ড কি একই খেলোয়াড় হতে পারেন? এই দুইটা রোলের কাজ মূলত কি? তো চলুন প্রশ্নগুলোর উত্তর খুঁজা যাক।

ফুটবল মাঠে গোল দেওয়ার সিংহভাগ দ্বায়িত্বে থাকা খেলোয়াড় গুলো হলেন ফরওয়ার্ড। মূলত একটা টিমের প্রতিটা পজিশনের খেলোয়াড় দের সাথে যদি একটা সাধারণ অঞ্চলের খেলোয়াড় এর সূত্র থাকে, তাহলে সেটা হলো ফরওয়ার্ড। ফরওয়ার্ড বলতে অবশ্য উইংগার দেরও বুঝায়। আপাতত উইং এর দিকে আমরা দৃষ্টিপাত না করা হোক । প্রধান আলোচনার বস্তু হিসেবে স্ট্রাইকার আর সেন্টার ফরওয়ার্ড পজিশন টা নিয়ে আলোচনা চালানো যাক। কারন সকল পজিশনের খেলোয়াড় দের সাথেই তাদের একটা যোগসূত্র থাকতে দেখা যায়। মূলত ফরওয়ার্ড পজিশন এ খেলে বলে গোল করাই এই পজিশনে খেলা খেলোয়াড় দের সবথেকে প্রধান ব্যাপার হলেও দুটো যেহেতু আলাদা পজিশন, তাই এদের রোলেও কিছু ভিন্নতা অবশ্যই আছে। আর এজন্যই অনেকসময় এদের মুভমেন্ট কিংবা ওয়ার্করেটেও ভিন্নতা দেখা যায়। বেশ, তবে চলুন দেখে আসা যাক একটা খেলায় একজন স্ট্রাইকার বা ফরওয়ার্ড কি ধরনের ভূমিকা রাখতে পারেন।

চলুন, প্রথমে একজন জেনুইন স্ট্রাইকার কেমন হতে পারেন সেটা নিয়ে আলোচনা করা যাক। একজন জেনুইন স্টাইকার মাত্রই গোল করবে, সেটা নিয়ে অবশ্যই কোনো সন্দেহ নেই, সেটা যেকোনো অবস্থা কিংবা যেকোন সময়তেই হোক না কেন। এই ভূমিকার খেলোয়াড়দের একটা অনন্য বৈশিষ্ট্য বা গুণ থাকে। সাধারণত খেলায় দেখা যায়, উইং প্রান্ত থেকে বাড়ানো বল কিংবা ক্রস থেকে কিংবা মাঝমাঠের বাড়ানো বল থেকে একজন খেলোয়াড় দ্রুতগতিতে তার স্পিডের মাধ্যমে রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের পরাস্থ করে গোল করেন। আপনারা সবাই হয়ত জেইমি ভার্দিকে চিনে থাকতে পারেন। তার খেলার ধরনের সাথে উপরের কথাগুলো অনেকাংশেই মিলে যায়। আবার যদি চিচারিতো হার্নান্দেজ এর মতো কিছু খেলোয়াড়ের কথা চিন্তা করা যায়, তবে ভিন্ন একটি জিনিষ দেখা যায়। এক্ষেত্রে তাকে বেশিরভাগ সময়েই ডি-বক্সের আশেপাশের অঞ্চলে ঘোরাঘুরি করতে দেখা যায় এবং তার মতো খেলোয়াড় সাধারণত ট্যাপ-ইন ধরনের গোল করে বাজিমাত করেন। অনেকেই আমরা জেইমি ভার্দি কিংবা চিচারিতো হার্নান্দেজের এমন খেলার ধরনকে "গোল পোচার" বা "ফক্স-ইন দ্য বক্স" হিসেবে চিনি। এমনকি চিচারিতো হার্নান্দেজের “ফক্স ইন দ্য বক্স” হিসেবে ভালোই সুখ্যাতি আছে।

                   

তো যাইহোক, মূল কথায় ফিরে আসা যাক। মূলত এই "পোচার" বা "ফক্স" এর কাজ কি রকম? এই ধরনের খেলোয়াড় রা মূলত একটা সময় হঠাৎ করে গোল করতে অভ্যস্ত। বেশ, বাস্তব কিছু উদারন দিয়ে বিষয়টা পরিষ্কার করার চেষ্টা করা যাক। ধরা যাক আপনি একটা অন্য পজিশনের খেলোয়াড় এবং আপনার বন্ধু স্ট্রাইকার। এখন আপনি হয়ত ক্রস করলেন কিংবা মাঝমাঠ থেকে একটি বল আপনার বন্ধুর উদ্দেশ্যে বাড়িয়ে দিলেন। আপনার বন্ধুটি “পোচার” হলে ওই মিলিসেকেন্ড সময়েই আপনার উদ্দেশ্য বুঝতে পেরেই যথাযথ পজিশনিং নিয়ে দৌড়ানো শুরু করবেন বা ক্রসিং এর সময়ে যথাযথ পজিশনে চলে যাবেন। এটাই মূলত পোচিং। মূলত এই ধরনের ঘটনা ঘটানোর জন্য পেস বা স্পিড,নিখুঁত পজিশনিং ও ফিনিশিং,দলের অন্যান্য খেলোয়াড়দের সাথে দের যথাযথ আন্ডারস্ট্যান্ডিং এবং অফসাইডের ফাঁদ এড়িয়ে চলার দক্ষতা থাকা প্রয়োজন। দৌড়ের উপর থাকতে থাকতেই আপনাকে আপনার সিদ্ধান্ত ঠিক করতে হবে। শারীরিকভাবে শক্তিশালী বা প্রচুর স্ট্রেংথফুল হওয়ার খুব একটা দরকার হয়না।

তবে এখানে একটি কথা না বললেই নয়। প্রয়োজন ছাড়া এমন স্ট্রাইকার কিংবা "পোচার"রা কখনই নিচে নামবেন না। এমনকি দলের রক্ষণের সময় সকল খেলোয়াড় মিলে রক্ষণ করার সময়েও তিনি উপরের দিকেই থাকবেন। সর্বোচ্চ হলে মিড লাইনের সামান্য নিচ পর্যন্ত নামতে পারেন। আর তিনি পুরোপুরি দলের অন্যান্য খেলোয়াড় দের চান্স ক্রিয়েশন কিংবা পাস দেওয়া কিংবা ক্রসিং এর উপর নির্ভরশীল। তাছাড়া ইনারা সবসময়ই দলের কাউন্টার এট্যাকের জন্য তৈরি থাকেন। তারা ফিনিশিং এর ক্ষেত্রে বেশ প্রভাবশালী । ওয়ান-অন-ওয়ান সিচুয়েশনে গোল দিতে পারবেন তিনি এবং ১০ টির মধ্যে ৭/৮ টিই নিশ্চিত গোল এর আশা করাই যায় তার দ্বারা। ২০১৫/১৬ মৌসুমেই জেইমি ভার্দি-রিয়াদ মাহরেজ জুটির মাধ্যমে আসা কিছু গোলের দিকে দৃষ্টি আরোপ করলে সহজেই বিষয়টা বুঝা যায়।

এবার আসা যাক একজন সেন্টার ফরওয়ার্ড এর ব্যাপার নিয়ে। যদি স্ট্রাইকার এর কাজ ফিনিশিং করা হয় তাহলে একজন সেন্টার ফরওয়ার্ড এর কাজটি কি? কিসের জন্য তিনি একজন স্ট্রাইকার থেকে আলাদা? আগেই আলোচনা করেছি স্ট্রাইকার দের "পোচিং" বৈশিষ্ট্য থাকা নিয়ে। অবশ্য একজন সেন্টার ফরওয়ার্ডের এই বৈশিষ্ট্য থাকতে পারে, তবে মূলত যেই বৈশিষ্ট্যের জন্য একজন স্ট্রাইকার একজন সেন্টার ফরওয়ার্ড থেকে আলাদা, সেটিকে "ফ্লেয়ার" বলা যেতে পারে। হ্যাঁ, এটি অবশ্যই ঠিক, ফ্লেয়ার জিনিষটি উইংগার, মিডফিল্ডার এমনকি ডিফেন্ডারদের (পড়ুন ফুলব্যাক) ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য, একজন সেন্টার ফরওয়ার্ড এর ক্ষেত্রেও ব্যাপারটি কিভাবে? কথাটি এখানেই, একজন সেন্টার ফরওয়ার্ড উইংগার হিসেবেও খেলতে পারেন। যেটা একজন গোল পোচার স্ট্রাইকার এর জন্য সম্ভব নাও হতে পারে। বেশ,তো, ফ্লেয়ার জিনিষটি কি? সোজা কথায়, বল নিয়ে এমন কিছু করা যেটাতে বিপক্ষদলের খেলোয়াড়রা সাময়িকভাবে হতচকিত হয়ে পড়েন। এটি সম্ভব হতে পারে হঠাৎ করে করা ড্রিবলিং কিংবা টিমমেট এর সাথে ওয়ান-টু পাসিং করে আক্রমণভাগের দিকে দৌড় দেওয়া কিংবা দৌড়ের মাধ্যমে চান্স ক্রিয়েট করার সুযোগ খুঁজতে থাকা। সুতরাং, একজন সেন্টার ফরওয়ার্ড এর অন দা বল এবং অফ দা বল মুভমেন্ট বেশ গুরুত্বপূর্ণ। ইচ্ছা করলে দলের ম্যানেজার একজন সেন্টার ফরওয়ার্ড কে উইং এ ছাড়াও এট্যাকিং মিডের পজিশনে খেলাতে পারেন। তিনি দলের রক্ষণে সহায়তা দিতে চাইলেও দিতে পারে, কিংবা আক্রমণ তৈরির সময়ে হালকা নিচে নেমে এসে মাঝমাঠের খেলোয়াড়দের সাথে মিলে আক্রমণে যেতে পারেন। দরকার হলে একজন পোচার রোল আর ফ্লেয়ার রোলের কম্বাইন্ড রোল প্লে করে গোলও দিতে পারেন তিনি। আমাদের সবার কাছে অ্যালেক্সিস সানচেজের নামটি অতি পরিচিত। আর্সেন ওয়েংগারের অধীনে আর্সেনালে তাকে সম্প্রতি এভাবেই খেলতে দেখা যাচ্ছে। এতে তিনি যেমন গোলও পাচ্ছেন, তেমনিভাবে বিল্ড-আপে সহায়তা,এসিস্ট এবং অনেকখানি প্লে-মেকার ভূমিকা পালন করে দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

                        

প্রশ্ন আসতে পারে,একটি স্কোয়াড বানানো এবং খেলার ধরন অনুযায়ী কোন রোল বা পজিশন টা বেশি কার্যকর? বেশ, এটি নির্ভর করে আপনি কোন ফর্মেশনে এবং কোন ধরনে আপনার টিমকে খেলাতে চান। যদি আপনি পসেশন বেসড ফুটবল পছন্দ করেন, তবে আপনি সেন্টার ফরওয়ার্ড রোলকে বেছে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনার সেন্টার ফরওয়ার্ড ফলস-৯ প্লে করে ভূমিকা রাখতে পারেন। তবে যদি আপনি কাউন্টার এট্যাক বা লংবল খেলাতে পছন্দ করেন, তবে আপনার জন্য একজন স্ট্রাইকার কিংবা পোচার বেশি কার্যকরী। তবে ইচ্ছা করলে একই সাথে আপনি আপনার টিমে একজন পোচার এবং একজন ফরওয়ার্ড কে খেলাতে পারবেন। লেস্টার সিটি টিম টিকে দেখতে দেখা যায়, ৪-৪-২ ফর্মেশনে সেখানে জেইমি ভার্দি স্ট্রাইকে খেলার পাশাপাশি সিনজি ওকাজাকি কিংবা অন্য কেউ খানিকটা ডানে নিচে নেমে ফরওয়ার্ড রোল হিসেবে খেলতে থাকে। এভাবে খেলে লেস্টার সিটি ইতোমধ্যেই বেশ সফলতা লাভ করেছে যার মধ্যে ২০১৫/১৬ মৌসুমের ইপিএল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ব্যাপারটি বলা যায়।

তাহলে, এক্ষেত্রে কার্যকর ফর্মেশন গুলো কি কি হতে পারে?

“পোচার” এর জন্য ৪-৫-১ ফর্মেশনটা বেশ ভালো। এটি একই সাথে ৪-৩-৩ হয়ে উইং এট্যাকে কিংবা লং বল এ সাপোর্ট দিতে পারে যেটা পোচার এর ক্ষেত্রে অনুকূল। যেকোনো একটি স্ট্রাইকার এর ফর্মেশনেই একজন স্ট্রাইকার “পোচার” ভূমিকা পালন করতে পারেন। সেটি তার নিজের মেন্টালিটির উপরে নির্ভর করে। তবে ৪-২-৩-১ ফর্মেশনে যেই এট্যাকিং মিডফিল্ডার থাকেন, সেটি থেকে ওই খেলোয়াড়টি সেন্টার ফরওয়ার্ড এর ভূমিকা পালন করতে পারেন। এছাড়া ৪-৪-২ আরেকটি ফর্মেশন যেখানে আপনি একজন পোচার এবং ফরওয়ার্ড দুইটারই সাপোর্ট পাবেন। ফুটবল খেলায় সব পজিশনেরই কি-রোল থাকে, তবে এই রোল দুটা আপনাকে খেলার ফলাফল বের করে দিতে পারে এবং খেলায় ব্যবধান গড়ে দিতে পারে। তাই একজন “পারফেক্ট স্ট্রাইকার” কিংবা “পারফেক্ট ফরওয়ার্ড”এর মূল্য আধুনিক ফুটবলে অনেক বেশি।

                   

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন