বিশ্বকাপ টিম প্রিভিউঃ উরুগুয়ে

বিশ্বকাপ টিম প্রিভিউঃ উরুগুয়ে

২০১০ বিশ্বকাপে লুইস সুয়ারেজের হ্যান্ডবল কাণ্ডের কথা মনে আছে? ম্যাচটি ছিল কোয়ার্টার ফাইনালে ঘানার বিপক্ষে। একেবারে শেষ মিনিটে নিশ্চিত গোল হাত দিয়ে ঠেকিয়ে দেন সুয়ারেজ, লাল কার্ড দেখে হয় তাঁকে এই কারনে। ঘানার আসামো জিয়ান পেনাল্টি নিতে আসেন, কিন্তু বল জালে জড়াতে পারেন নি। উরুগুয়ে চলে যায় সেমি ফাইনালে, লুইস সুয়ারেজ বনে যান জাতীয় হিরো।

২ বার বিশ্বকাপ জেতা উরুগুয়ে এবারো বিশ্বজয়ের স্বপ্ন নিয়ে যাচ্ছে রাশিয়াতে। Group A তে তাদের বিপক্ষে লড়বে স্বাগতিক রাশিয়া, সৌদি আরব, আর মোহাম্মদ সালাহ এর দেশ মিশর। শক্তিমত্তার দিক দিয়ে এদের মধ্যে উরুগুয়েই সবচাইতে এগিয়ে। বাকিদের মধ্যে রাশিয়া ও মিসর এর মধ্যে ১টি হয়তবা পরের রাউন্ডে যেতে পারে বলে অনুমান করা যায়।  

কোচ অস্কার তাবারেজ এর অধীনে দলনায়ক ডিয়েগো গোডিন (অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ, ৩১), লুইস সুয়ারেজ (বার্সেলোনা,৩০), এডিসন কাভানি (পিএসজি, ৩০) ও হোসে মারিয়া হিমিনেজ (অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ, ২৩)  হচ্ছেন উরুগুয়ের প্রধান সেনানী। এছাড়াও অনেক তরুন খেলোয়াড় উঠে এসেছেন বর্তমান সময়ে। ৪-২-২ ফ্ল্যাট অথবা ৪-৩-৩ ফর্মেশন ব্যাবহার করতে দেখা যেতে পারে অস্কার তাবারেজ কে। উরুগুয়ের ডিফেন্স ভাঙ্গা বেশ শক্ত, অ্যাটাক ও বিশ্বসেরা। কাভানি আর সুয়ারেজ সম্বলিত অ্যাটাকের ক্ষমতা আছে যেকোনো ডিফেন্স কে ভেঙ্গে দেবার। সমস্যা আছে মিডফিল্ডে, এই দুর্বল জায়গাটা কতদুর ঠিক করতে পারবেন তাবারেজ সেটা সময় বলে দিবে। অন্য আরো সমস্যার মধ্যে আছে খেলোয়াড়দের বয়স বেড়ে গেছে, টিমের বিল্ড আপ স্পিড স্লো, প্রধান খেলোয়াড়দের ধারাবাহিকতার অভাব।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, উরুগুয়ে এই দল নিয়ে কত দূর যেতে পারবে? এটা ঠিক যে, খোদ দক্ষিন আমেরিকার দল গুলোর মধ্যে উরুগুয়ে অত শক্তিশালি না, সেখানে ইউরোপিয়ান আরো অনেক দলের বিপক্ষে খেলতে গেলে তাদের অনেক ভুগতে হবে। কোচের ট্যাকটিকস দিয়ে আর প্রধান খেলোয়াড়দের ফর্ম যদি অনেক ভাল থাকে তাহলে কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত যেতে পারবে উরুগুয়ে। এর আগে বড় কোন ইউরোপিয়ান দলের মুখোমুখি হয়ে গেলে সুযোগ টা কমে যাওয়ার আশংকা থাকছেই। 

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন