আফটার উইন্টার ট্রান্সফার উইন্ডো: বার্সেলোনা স্কোয়াড ডেপথ!

আফটার উইন্টার ট্রান্সফার উইন্ডো: বার্সেলোনা স্কোয়াড ডেপথ!

একমাত্র কৌতিনহোর ট্রান্সফারের পর দুর্দান্তরুপে থাকা বার্সেলোনাকে যেন আরও ভয়ংকর দেখাচ্ছে। লীগ, কোপা দেল রে এবং উচলেও অপরাজিত থাকা বার্সেলোনা খেলেছে দেমবেলে ছাড়া, কৌতিনহো তখনো বার্সেলোনাতে আসে নি মাঝপথে স্যামুয়েল উমতিতির ইঞ্জুরি নিয়ে। কিন্ত ভালভার্দের বার্সেলোনা এ তিনজন গুরুত্বপুর্ন প্লেয়ার ছাড়াই যেমন ফুটবল উপহার দিয়েছে তা বিশ্লেষন করে বলবার ভাষা নেই। তাই দেমবেলে, উমতিতি ফেরা এবং কৌতিনহোর ট্রান্সফারের পর বার্সেলোনা ভয়ালরুপ ধারন করতেই পারে।



কৌতিনহোর বিগ ট্রান্সফারের পর বার্সেলোনার বর্তমান স্কোয়াড নিয়ে আলোচনায় ফেরা যাক। গোলকিপার এর দায়িত্বে অবশ্যই থাকবে জার্মান দেয়াল মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগান, চলতি সিজনে বার্সেলোনার সেরা পার্ফমেন্স করা প্লেয়ারদের একজন তিনি, শুধু বার্সেলোনাতে নয় বর্তমান বিশ্বে স্টেগান অন্যতম সেরা গোলকিপার, যার উপর কিউলদের অগাধ ভরসা। সেকেন্ড চয়েজ ইয়াসপার সিলেসেন, সিলেসেন সেকেন্ড গোলকিপার হিসেবে পারফেক্ট চয়েজ। এ সিজনে তার দায়িত্ব শুধু কোপা দেল রে এবং স্টেগান এর ব্যাকআপ। এ ছাড়াও বার্সা বি গোলকিপার অর্তোলা। 


রক্ষনে দায়িত্বে সেন্ট্রালব্যাক পজিশনে জেরার্ড পিকে ও স্যামুয়েল উমতিতি অটো চয়েজ, ব্যাকআপ হিসেবে থাকবে চলতি সিজনে নতুন করে নিজেকে ফিরে পাওয়া টমাস ভারমায়লেন। তবে হাভিয়ে মাশ্চেরানোর থাকা অনিশ্চিত, হয় তিনি থাকবেন নয়তো তিনি চলে গেলে বিকল্প হিসেবে আনা হবে পালমেইরাস থেকে কলম্বিয়ান সেন্ট্রালব্যাক ইয়েরি মিনা। রাইট ব্যাকে ভালভার্দে সার্জি রবার্তো ও নেলসন সেমেদোকে রোটেট করে খেলাতে পারবেন, লেফট ব্যাকে অবশ্যই জর্দি আলবা তার ব্যাকআপও রেখেছে বার্সেলোনা, ফরাসী ফুলব্যাক লুকাস দিনিয়ে।


মিডফিল্ডে প্লেয়ার সাজাতে আর্নেস্টো ভালভার্দেকে পরতে হবে মধুর সমস্যায়। সেন্ট্রাল ডিফেন্সিফ মিডফিল্ডার হিসেবে দলে নিয়মিত মুখ বুসক্টেটস তবে এ পজিশনে পাউলিনহো ও আন্দ্রে গোমেজের খেলার সুযোগ রয়েছে। আরও থাকবে আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, ডেনিস সুয়ারেজ, ইভান রাকিটিচ। ভার্সেটাইল রবার্তোকেও মিডের জন্য কাউন্ট আবশ্যক এবং নতুন মুখ ফিলিপে কৌতিনহো যাকে ইনিয়েস্তার রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে আনা হয়েছে, যদিও কৌতিনহোর এ্যাটাকিং মিডফিল্ড এবং লেফট মিড দুই পজিশনেই খেলার দক্ষতা রয়েছে। রাফিনিয়া বার্সেলোনা না ছাড়লে তারকাযুক্ত বার্সেলোনা মিডফিল্ডে তিনি সংযুক্ত হবে, দলের প্রয়োজনে বার্সা বি স্টার কার্লোস আলেনাকে ডাকার সুযোগ থাকবে ভালভার্দের কাছে, আর লিও মেসি তো আছেন বিপদে মিডফিল্ডের হাল ধরতে।


নেইমার চলে যাবার পর বার্সেলোনার এমএসএনত্রয়ীর মত আক্রমন ভাঙার পর বার্সেলোনা নতুন করে আক্রমন গড়ে তুলেছে কৌতিনহো ও দেমবেলে কে কিনে।  বার্সেলোনার আক্রমনের বাম পাশের দায়িত্ব থাকবে ফরাসী উইঙ্গার উসমান দেমবেলের যদিও সদ্য দলে ভেড়ানো ফিলিপে কৌতিনহো এ পজিশনেও খেলে থাকেন। ইঞ্জুরি সমস্যা না থাকলে আক্রমনের মধ্যভাগের দায়িত্ব লুইস সুয়ারেজের। যার ব্যাকআপ হিসেবে পাকো আলকাসার ও সদ্য আবিষ্কৃত লা মাসিয়ান হোসে আর্নাইজ। ডান পাশে দলের সেরা প্লেয়ার মেসি ও তার ব্যাকআপ হেরার্দ ডেউলাফেউ। বাম পাশের দায়িত্বে আলেক্স ভিদালও থাকবে বার্সেলোনার স্কোয়াডে,  ভিদাল একাধারে রাইটব্যাক, রাইট মিডফিল্ড ও রাইট উইং সামাল দিতে পারদর্শী। আর্দা তুরান বার্সেলোনা থাকছেন না আনুষ্ঠানিকতা এখন পর্যন্ত না হলেও এটা শিওর। হয়তো এবার জানুয়ারি ট্রান্সফার উইন্ডোতে বিদায় নিতে পারে ডেউলাফেউ ও ভিদাল।


তবে নতুন সিজনের শুরুতে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে লজ্জাজনক হারের পর বার্সেলোনাকে নতুন করে ভাববার শক্তি যে দিয়েছিলেন কোচ ভালভার্দের উপর নির্ভর করছে অনেক কিছু। তিনি যেমন অদল বদল করে খেলাতে ভালোবাসেন তেমনি তার হাতে থাকবে অনেকগুলো চয়েজ। কৌতিনহোকে মিড এবং এ্যাটার্কে, পাওলিনহোর পজিশন অদল বদল করে, মেসিকে ফ্রি রোল দিয়ে, সার্জি রবার্তোকে প্রয়োজনে দলের মধ্যভাগে ব্যবহার করে তিনি তার মনের মত স্কোয়াড সাজাতে পারবেন। খেলাতে পারবেন ৪-৩-৩ থেকে ৪-৪-২ বা ৪-২-৩-১ এর মত পরিবর্তিত ফর্মেশনে। তাই সবকিছু ঠিকঠাক থাকার পর শুধু সাফল্যই এখন একমাত্র কাম্য।

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন