রাশিয়া বিশ্বকাপের আদ্যোপান্ত!

রাশিয়া বিশ্বকাপের আদ্যোপান্ত!

সামনের গ্রীষ্মে শুরু হতে যাচ্ছে ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে বড় অনুষ্ঠান 'রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮'। বিশ্বকাপককে ঘিরে ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে উন্মাদনা। কোয়ালিফায়িং রাউন্ড শেষে নির্দিষ্ট হয়ে গিয়েছে শেষ ৩২ দলও। জুন-জুলাই এ হতে যাওয়া এই বিশ্বকাপকে ঘিরে তাই এখনো রয়েছে নানান ধরণের প্রশ্ন। গ্রুপ বাছাইয়ের প্রক্রিয়া, কোন অনুষ্ঠিত হবে ড্র, টুর্নামেন্টের ফেভারিট দল কিংবা কোন দলের কোয়ালিফাই সবচেয়ে অবাক করা ছিলো তা নিয়েই এই লেখা। 

-কোন কোন দল করলো কোয়ালিফাই? 

রাশিয়া বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়িং পর্ব শেষ হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। ৩২টি দল কোয়ালিফাই করেছে ফুটবলের সবচেয়ে বড় এই প্রতিযোগিতার জন্যে। ৩২ দল নিয়ে হয়ে গিয়েছে ৪টা পট। 

ইউরোপ থেকে রয়েছে হোস্ট রাশিয়া সহ গ্রুপ উইনার বেলজিয়াম, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, আইসল্যান্ড, পোলান্ড, পর্তুগাল, সার্বিয়া এবং স্পেন। প্লে-অফের মাধ্যমে এসেছে ক্রোয়েশিয়া, ডেনমার্ক, সুইডেন ও সুইজারল্যান্ড। আফ্রিকা থেকে রয়েছে মিশর, মরক্কো, নাইজেরিয়া,সেনেগাল, তিউনেশিয়া। নর্থ ও সেন্ট্রাল আমেরিকা এবং ক্যারিবিয়ান থেকে রয়েছে কোস্টারিকা, মেক্সিকো, পানাম। সাউথ আমেরিকা অংশ থেকে রয়েছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কলোম্বিয়া, পেরু, উরুগুয়ে এবং সর্বশেষ এশিয়া থেকে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, ইরান, জাপান, সৌদিআরব, সাউথ কোরিয়া। 

-গ্রুপ নিশ্চিতের ড্র কখন এবং কীভাবে? 

বিশ্বকাপ ফাইনাল ড্র অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১ ডিসেম্বর শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ৯ ঘটিকায়। অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বিবিসি। টেন ২ ও টেন ৩ অনুষ্ঠানটি সম্প্রচার করার কথা রয়েছে। অনুষ্ঠানটির উপস্থাপক ও উপস্থাপিকা হিসেবে থাকবেন প্রক্তন ইংলিশ ফুটবলার গ্যারি লিনেকার এবং রাশিয়ান স্পোর্টস সাংবাদিক মারিয়া কোমানদনেয়া। অনুষ্টানটি হবে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর ক্রেমলিন প্যালেস কনসার্ট হলে। 

২০১৭ এর অক্টোবর পর্যন্ত ফিফা রেংকিং এর ভিত্তিতে ৪টা পট নিশ্চিত করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। প্রত্যেক পটে রয়েছে ৮টা টীম এবং প্রথম পটে হোস্ট রাশিয়ার সাথে রয়েছে ফিফা রেংকিং অনুযায়ী ৭টি টপ রেংকিং দল। এভাবে রেংকিং এর ভিত্তিতে বাকি ৩টা পটে দলগুলো রয়েছে। উয়েফা ছাড়া সেইম কনফেডারেশন থেকে কোন দল একই গ্রুপে ড্র হবে না। সর্ব্বোচ্চ ২টা ইউরোপিয়ান দল এক গ্রুপে পড়তে পারবে। ৮টা বিশ্বকাপ জয়ী দেশ থেকে প্লেয়াররা থাকবেন অনুষ্ঠানে রিপ্রেজেন্টেটিভ হিসেবে। 

-টুর্নামেন্টের সবচেয়ে ফেভারিট দল কারা?

বিশ্বকাপের মত টুর্নামেন্টে সবসময়ই কিছু দল ফেভারিটের তকমা পেয়ে আসে। এইবারও তার ব্যাতিক্রম হয়নি। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন জার্মানির সাথে ফেভারিট হিসেবে থাকছে ব্রাজিল, ফ্রান্স, স্পেন, আর্জেন্টিনা, বেলজিয়াম এবং ইংল্যান্ড। জার্মানির লক্ষ্য থাকবে ব্রাজিলের পর প্রথম দল হিসেবে পর পর বিশ্বকাপ জ্যী দল হওয়া।

-কোয়ালিফায়িং রাউন্ডের সবচেয়ে নজরকাড়া পারফর্মেন্স কোন দলগুলোর?

২০১০ এর স্পেনের সাথে বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে হেরে যাওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত জার্মানি দল তাদের কোন বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়িং ম্যাচ কিংবা ফাইনাল ম্যাচ হারেনি। রাশিয়া বিশ্বকাপেও ১০ ম্যাচের সবগুলোতে জয় নিয়ে পূর্ণ পয়েন্ট পকেটে করে এসেছে তারা। সেই সাথে বেলজিয়াম, স্পেন ও ইংল্যান্ড দলও কোয়ালিফায়িং রাউন্ডে কোন ম্যাচ না হেরেই এসেছে। কোচ তিতের অধীনে থাকা ব্রাজিল দলও এইবার তাদের শেষ  ১২ ম্যাচের ১০টি তে জয়ের মাধ্যমে বেশ ভালো ফর্ম নিয়েই এসেছে বিশ্বকাপে। তাছাড়া, এশিয়া থেকে ইরান তাদের শেষ ১৮ ম্যাচের একটিতেও না হেরে এবং ১২ ম্যাচে ক্লিন শীট রেখে কোয়ালিফাই করেছে। আফ্রিকান অঞ্চল থেকে মরক্কো ৬ ম্যাচে কোন গোল না খেয়ে আইভরি কোস্টকে পিছনে ফেলে কোয়ালিফাই করেছে। 

-কোন কোন দলের প্রথম বিশ্বকাপ?

১০ লক্ষেরও কম জনসংখ্যার দেশ আইসল্যান্ডের জন্যে এইটা তাদের প্রথম বিশ্বকাপ। তার আগে তাদের মেজর কোন কাপে অংশগ্রহণ ছিলো ২০১৬ এর ইউরো। সেন্ট্রাল আমেরিকার দেশ পানামাও তাদের প্রথম বিশ্বকাপ থেলতে যাচ্ছে এবার। ৮৮ মিনিটে কোস্টারিকার বিপক্ষে গোল করে তারা তাদের এই মিশন নিশ্চিত করে এবং আমেরিকাকে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে দেয়। 

-বড় কোন কোন দলের বিশ্বকাপ খেলা হচ্ছে না?

সবচেয়ে বড় অঘটন ঘটেছে ইতালির বিশ্বকাপ না খেলা নিয়ে। ১৯৫৮ সালের পর প্রথম তারা বিশ্বকাপ মিস করবে। সুইডেনের সাথে প্লে-অফ এ হেরে গিয়ে তারা ছিটকে পড়ে। সেই সাথে বিশ্বকাপে দেখা মিলবে না ২০১০ এর ফাইনালিস্ট নেদারল্যান্ডকেও। তাছাড়া আরো যেসব বড় দল মিস করবে এইবারের বিশ্বকাপ তারা হলো- চিলি, আমেরিকা, ঘানা, গ্রিস, আইভোরি কোস্ট, চেক-রিপাব্লিক। 

-বিশ্বকাপ টিকেট এবং দাম?

ফিফার কাছে এখন পর্যন্ত টিকেটের জন্যে আবেদন পড়েছে প্রায় ৩৫ লক্ষের মত। যার মধ্যে শুধু ৩ লক্ষ আবেদন হচ্ছে ফাইনালের জন্যে। এই মাস থেকে শুরু হচ্ছে আগে আসার ভিত্তিতে টিকেট বিক্রি। আবেদনের মধ্যে প্রায় ৫৭ ভাগই হচ্ছে রাশিয়ার নাগরিক অথবা রাশিয়াতে অবস্থানকারী। ফাইনালের সবচেয়ে কমদামী টিকেটের জন্যে নন-রাশিয়ানদের গুনতে হবে ৩৪৫ পাউন্ড! 

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন