দলবদলের গুজবঃ নাবি কেইতা টু লিভারপুল

দলবদলের গুজবঃ নাবি কেইতা টু লিভারপুল

কিছুদিন ধরে জোর গুজব চলছে লিভারপুল দলে ভেড়াতে যাচ্ছে মিডফিল্ডার নাবি কেইতা কে। গিনির এই মিডফিল্ডার গত সিজনে তার ক্লাব রেড বুল লিপজিগ কে দ্বিতীয় স্থানে লীগ শেষ করায় মুখ্য ভূমিকা রেখে ক্লপের সুনজরে আসেন।

১২.৭৫ মিলিয়র পাউন্ডের বিনিময়ে রেড বুল-এর আরেক ক্লাব রেড বুল সালজাবুর্গ থেকে তাকে দলে এনেছিলো লিপজিগ। তার আগে কেইতা সালজাবুর্গ কে দু'বার অস্ট্রিয়ান বুন্দেসলীগা এবং অস্ট্রিয়ান কাপ অর্থাৎ দু'বার ডাবল জেতান যার মধ্যে একবার অস্ট্রিয়ান বুন্দেসলীগা প্লেয়ার অফ দ্য সিজন নির্বাচিত হন।

২০১৬-১৭ সিজনে নাবি কেইতা ৮ গোল এবং ৭ এসিস্ট করেন। তবে একজন মিডফিল্ডার হিসেবে এই পরিসংখ্যান তার ফুটবলিয় দক্ষতা সম্পর্কে যথাযথ বর্ণনা করতে যথেষ্ট নয়। কেননা এবারের বুন্দেসলীগায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সফল ড্রিবল (৮৩), দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নিঁখুত লং বল (৭), ফাইনাল থার্ডে সর্বোচ্চবার বল দখল (১৮০) এসব পরিসংখ্যান কেইতার হয়ে কথা বলছে। এছাড়াও তিনি ম্যাচ প্রতি গড়ে ২.৬ বার ট্যাকল এবং ২.৬ বার ইন্টারসেপ্ট করেছেন।

মিডফিল্ডার হিসেবে কেইতার আরেকটি ভালো গুণ হলো তিনি মিডফিল্ডের যেকোন জায়গায় খেলতে পারেন অর্থাৎ ভার্সেটাইল যেটা ক্লপের খুব পছন্দ। তবে কেইতার জন্য এই রেকর্ড আবারও ভাঙ্গছে তো বটেই, রেকর্ডের দ্বিগুনও গুনতে হতে পারে।

গত কয়েক উইন্ডো তে লিভারপুলের দলবদলে খরচের থেকে আয় বেশি। এছাড়াও কোন এক প্লেয়ারের জন্য এতো খরচ করা ক্লপের স্বভাববিরুদ্ধ। তবে এবার অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে ক্লপ এন্ড কোং তার এতোদিন বলে যাওয়া 'রাইট প্লেয়ার' দের জন্য আট-ঘাঁট বেঁধে নেমেছে। ইতোমধ্যে মোহামেদ সালাহ কে দিয়ে দলের খরচের রেকর্ড ভেঙ্গেছে। তবে ২২ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডারের দলবদলের গুজব যদি সত্য হয় তবে প্রশ্ন উঠে "কেইতার জন্য ৭০ মিলিয়ন পাউন্ড বা তার কাছাকাছি খরচ করা কি আসলেই যৌক্তিক?"

নাবি কেইতার মূল্য এতো বেশি হওয়ার কারণ কী হতে পারে? এর সম্ভাব্য কারণ হতে পারে প্রথমত বর্তমান দলবদলের বাজারের অবস্থা, দ্বিতীয়ত লিপজিগ এর অর্থনৈতিকভাবে ভাবে ভালো অবস্থানে থাকা, তৃতীয়ত লিপজিগের চ্যাম্পিয়ন্স লীগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করা, চতুর্থত কেইতা কে লিপজিগ এর পক্ষ থেকে ছাড়ার অনিচ্ছা। লিপজিগ এর প্রেসিডেন্ট তো বেশ কয়েকবার রীতিমত হুঁশিয়ার-ই করে দিয়েছেন। তবে বেশ কিছু রিপোর্ট মতে নাবি কেইতা মনস্থির করে রেখেছেন তিনি লিভারপুলে-ই পাড়ি জমাবেন।

কেইতা যদি লিভারপুলে আসেন তবে হয়তো তার জন্য '৮' নম্বার জার্সিটা অপেক্ষা করছে। এখন দেখার বিষয় কেইতার লিভারপুলে আসাটা কি আসলেই হচ্ছে? আর যদি হয় তবে তিনি কি তার মূল্য আর '৮' নম্বর জার্সি'র প্রতি সুবিচার করতে পারবেন? হয়তো হ্যাঁ, হয়তোবা না। এখন সময় শ্বাসরুদ্ধকর ২০১৮-১৯ সিজনের জন্য অপেক্ষার।

নতুন আর্টিক্যাল পাবলিশড হওয়া মাত্রই পড়তে চান?

আজই সাবস্ক্রিপশন করে নিন